Only Willpower নয়, স্বপ্ন পূরণ করতে চাই Extreme Emotion

প্রায় 70 হাজার লোক করতালিতে ফেটে পড়ছে । বিরাট বড় একটা স্টেডিয়াম আজ উপচে পড়েছে এই সন্ধ্যায় । প্রতিটা দর্শকের হাতে জ্বলে উঠেছে মোবাইলের মশাল । আসলে সে সমস্ত দর্শক-শ্রোতা বৃন্দের মন প্রাণ একসূত্রে গাঁথা হয়ে আছে আজকের অনুষ্ঠানের প্রাণকেন্দ্রে । ওই বিশাল স্টেডিয়ামের মাঝখানে মাটি থেকে ঠিক 10 ফুট উচ্চতায় কুড়ি ফুট ব্যাসের এক বিরাট রাউন্ড মঞ্চ তৈরি করা হয়েছে । বড় বড় বিরাট ব্যারেল সাউন্ডে ঘিরে ফেলা হয়েছে গোটা স্টেডিয়ামটা । অত্যাধুনিক লেজার এবং ডিজিটাল আলোকমালায় চারপাশ স্বপ্নের থেকেও যেন সুন্দর । এই উৎসবের প্রাচুর্যের ঠিক মাঝে মঞ্চের একেবারে কেন্দ্রে এক আলোক বৃত্তে ঠিক কেন্দ্র বিন্দুতে দাঁড়িয়ে আছে রূপ, একজন ব্যান্ড গিটারিস্ট । তার আঙ্গুলের ছোঁয়ায় তৈরি হওয়া শব্দ মানুষের হৃদয়কে উত্তাল করে তুলেছে। চোখ ও কান জুড়িয়ে সেটা দখল করে নিয়েছে 70 হাজার মানুষের গোটাটাই । একটু পরেই সেই মঞ্চে হাজির হবে আদিত্য, এই সময়ের সব থেকে সফল দুরন্ত একজন সিঙ্গার সে । এদের পারফরম্যান্সের ঠিক আগেই অসাধারন নৃত্য পরিবেশনায় মনমুগ্ধকর সন্ধ্যা উপহার দিয়েছে চন্দ্রিমা । স্টেজ থেকে গ্রিনরুমে যাওয়ার মাত্র 2 মিনিটের রাস্তা 45 মিনিটে পার করেছে চন্দ্রিমা । ভক্ত এবং তাদের অটোগ্রাফের আবদার । অনুষ্ঠানের শুরুতে সাহিত্যে অবদানের জন্য পুরস্কার পেয়েছে অভিনব ও কমলিকা । আজকের দিনের আগে তাদের পারস্পরিক বন্ধুত্ব না থাকলেও